| সকাল ৯:৫২ - রবিবার - ১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৫ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

নেসলে ধ্বংস করবে চারশ’ কোটি টাকার ম্যাগি নুডলস

অনলাইন ডেস্ক, ১৬ জুন ২০১৫, মঙ্গলবার:

ভারতের কেন্দ্রীয় খাদ্যসুরক্ষা ও মান নিয়ন্ত্রক সংস্থার (এফএসএসএআই) আরোপিত নিষেধাজ্ঞার কারণে বিপুল পরিমাণ ম্যাগি নুডলস ধ্বংস করতে চলেছে সুইস বহুজাতিক খাদ্য ও পানীয় সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান নেসলে।

ঘোষণা অনুযায়ী, ধ্বংস করতে চলা নুডলসের বাজার মূল্য ৫ কোটি মার্কিন ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় চারশ’ কোটি টাকা।

মঙ্গলবার (১৬ জুন) নেসলের পক্ষ থেকে দেওয়া এক বিবৃতির বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো।

নুডলস ধ্বংসের কথা নিশ্চিত করে বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠানটি বলে, এই পাঁচ কোটি ডলারের বাইরেও আরও খরচ রয়েছে। বাজারে ছড়িয়ে থাকা পণ্যগুলোকে ফেরত আনা, এগুলোকে ধ্বংসের জন্য নির্ধারিত স্থানে পরিবহন ও ধ্বংস ইত্যাদি। ধ্বংস করা নুডলসের বাজার মূল্যসহ চূড়ান্ত খরচের হিসাব পরবর্তীতে জানানো হবে।

এর আগে মাত্রাতিরিক্ত সীসা ধরা পড়ার অভিযোগে পণ্যটির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে কেন্দ্রীয় খাদ্যসুরক্ষা ও মান নিয়ন্ত্রক সংস্থার (এফএসএসএআই)। নির্দেশনায় সংস্থাটি বলে, ম্যাগির নয়টি অনুমোদিত ইনস্ট্যান্ট নুডলসের সবকয়টি পরীক্ষায় বিপজ্জনক এবং ঝুঁকিপূর্ণ বলে প্রমাণিত হয়েছে। তাই এসব নুডুলস বাজার থেকে প্রত্যাহার করতে হবে। একই সঙ্গে নতুন করে উত্‍পাদন, আমদানি, বণ্টন এবং বিক্রিও বন্ধ রাখতে হবে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ১১ জুন মুম্বাইয়ের সর্বোচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হন নেসলে ইন্ডিয়া লিমেটেডের আইনজীবীরা। এ নিয়ে ১২ জুন যুক্তিতর্ক হয়। যুক্তিতর্ক চলাকালে নেসলের আইনজীবীরা দাবি করেন, ম্যাগি নুডলস পণ্য খাদ্যসুরক্ষা ও মান ধরে রাখতে ব্যর্থ নয়। এটা জোর করেও তৃতীয় বিশ্বের (উন্নয়নশীল দেশ) ওপর চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে না। এ নুডলস সম্পূর্ণ নিরাপদ।

ম্যাগির নয়টি ব্র্যান্ডের ওপর এফএসএসএআই’র তরফে যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে সেটি ‘অযৌক্তিক’ ও ‘গোঁড়া’ বলেও দাবি করেন তারা। তারা অভিযোগ করেন, যে নুডলসের নমুনাগুলো পরীক্ষা করা হয়েছে সেগুলো অনেক আগেই নেসলের পক্ষ থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ বলে ঘোষণা করা হয়েছিল। এসময় তারা কয়েকটি পণ্যের পরীক্ষার তারিখ ও নেসলে কর্তৃক মেয়াদোত্তীর্ণ ঘোষণার তারিখও তুলে ধরেন আদালতের সামনে। এছাড়া, তিনটি নুডলসের নমুনা পরীক্ষা করে সবগুলোর ওপরই নিষেধাজ্ঞা আরোপে স্থানীয় আইন লঙ্ঘিত হওয়ার অভিযোগ তোলেন তারা।

তবে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা বলেন, খাদ্যসুরক্ষা ও মান নিশ্চিত করে খাবার সরবরাহের আইন থাকলেও তা ম্যাগি মানেনি। তাছাড়া, তাদের উৎপাদিত পণ্য পরীক্ষা করেই বিপদের কথা নিশ্চিত হওয়া গেছে।

উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে আদালত বলেন, যেখানে নেসলেই তার ম্যাগি প্রত্যাহার করে নিয়েছে, সেখানে নিষেধাজ্ঞার আর কোনো প্রশ্ন আসছে না।

এসময় রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের নির্দেশ দেওয়ার পাশাপাশি নিষেধাজ্ঞা আরোপের ক্ষেত্রে নেসলের পক্ষ থেকে যে আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ তোলা হয়েছে তা-ও খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেন আদালত। নির্দেশনার জবাব দিতে দুই সপ্তাহ সময় বেঁধে দেওয়া হয় নেসলেকে। আগামী ৩০ জুন আবেদনটির পরবর্তী শুনানির দিন নির্ধারণ করা হয়।

ভারতে নুডলস বাজারের ৮০ শতাংশই সুইস বহুজাতিক খাদ্য ও পানীয় সরবরাহকারী এই প্রতিষ্ঠানটির দখলে। ১৯৮৩ সালে প্রতিষ্ঠানটির নুডলস ভারতে আসে। এরপর এটি এতোটাই জনপ্রিয় হয়ে ওঠে যে, দেশটির প্রায় প্রতিটা মুদি দোকানেই ঝুলে থাকতে দেখা যায় ম্যাগি নুডলসের প্যাকেট।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৪:১৯ অপরাহ্ণ | জুন ১৬, ২০১৫