| রাত ৮:১৩ - মঙ্গলবার - ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

মুক্তাগাছায় মামলায় হাজিরা দিতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৭ জন নিহত

 
 সিরাজুল হক সরকার, ১৫ জুন ২০১৫, সোমবার, 
মামলায় হাজিরা দিতে গিয়ে মুক্তাগাছার পাইকড়া গ্রামের একই পরিবারের ৭ জন সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও ৪ জন। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় ময়মনসিংহ-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মুক্তাগাছার নিমুরিয়া ডুবারপাড় এলাকায় সিএনজি অটোরিকশা- পি-কাপভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে এ ঘটনাটি ঘটেছে। নিহতরা হলেন উপজেলার পাইকড়া গ্রামের নবীরন বেওয়া (৫২), তার ৩ ছেলে ইকবাল হোসেন (৪০) আঃ ছালাম (৩২), অটোরিকশার চালক মন্টু মিয়া(২৩), দেবর জয়নাল আবেদীন(৫৫), তোফানিয়া(৬০) ও আবুল কাশেম (৬২)। আহত জমশেদ, মাসুদ, লুৎফর, ও মনোয়ারাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাাতলে ভর্তি করা হয়েছে। একই পরিবারের ৭ জন নিহত হওয়ায পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
থানা পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, একটি মামলায় হাজিরা দিতে পরিবারের ৭ সদস্য তাদের নিজস্ব অটোরিকশায় গাঁধাগাঁধি করে ময়মনসিংহের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে রওনা হন। পথে ঘটনাস’লে তাদের অটোরিকশাটি একটি পিকাপভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস’লে ৪ জন, মুক্তাগাছা হাসপাতালে ১জন ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পর আরো ২জন মৃত্যু হয়। দূর্ঘটনায় সিএনজি অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে সড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। থানা পুলিশ দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া পিকাপভ্যান ও অটোরিকশাটি উদ্ধার করেছে।
মুক্তাগাছা থানার ওসি কামাল হোসেন বলেন, পরিবারের দাবির প্রেক্ষিতে বিনা ময়না তদনেত্ম পরিবারের কাছে লাশগুলো হসত্মানত্মর করা হয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১০:১১ অপরাহ্ণ | জুন ১৫, ২০১৫