| বিকাল ৪:২৫ - শনিবার - ১৩ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

ঈশ্বরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ মাঠের জলাবদ্ধতার ছবি ফেইসবুকে প্রকাশ করায় শিক্ষককে শোকজ

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি- ১১ জুন ২০১৫, বৃহস্পতিবার,
ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ মাঠের জলাবদ্ধতার ছবি ফেইসবুকে প্রকাশ করায় ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রভাষক আব্দুলস্নাহ আল মামুন কামালকে শোকজ করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। ৭ জুন স্বাক্ষরিত এক পত্রে কলেজের সুমান নষ্ট হয় এমন তথ্য ফেসবুকে প্রকাশ করায় কেন তার বিরম্নদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে না ৭ কার্যদিবসের মধ্যে লিখিত জবাব দিতে বলা হয়েছে ওই প্রভাষককে ।
জানাযায়, সম্প্রতি কলেজের জলাবদ্ধতা নিয়ে ফেসবুকে ছবিসহ স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন কলেজের ব্যবস’াপনা বিভাগের প্রভাষক আব্দুল্লাহ আল মামুন কামাল। বিষয়টি নিয়ে ক্ষুব্ধ হন কলেজের অধ্যক্ষসহ পরিচালনা কমিটির সদস্যরা। পরে ৭জুন ব্যবস্থাপনা বিভাগের ওই প্রভাষককে শোকজ করেন অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম খান। শোকজ করার মধ্য দিয়ে মানুষের বাক স্বাধীনতা হরণ করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেন প্রভাষক আব্দুলস্নাহ আল মামুন কামাল।
সরেজমিন পরিদর্শনে দেখা যায়, উপজেলা সদরে অবসি’ত ঈশ্বরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের মাঠে সামান্য বৃষ্টিতেই সৃষ্টি হচ্ছে জলাবদ্ধতার। প্রায় বছর খানেক আগে কলেজের পেছনের একটি নর্দমা বালু দিয়ে ভরাট করায় তখন থেকেই এ অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে শিক্ষার্থী সহ আসপাশের বাসিন্দারা।
কলেজ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, প্রায় দশ বছর পূর্বে ঈশ্বরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের ব্যবসা ব্যবস্থাপনা (বিএম) শাখা চালু হওয়ার পর মাঠের পূর্বদিকে একটি দ্বিতল ভবন নির্মাণ করা হয়। বছর খানেক আগে ওই ভবনটির নির্মাণকালীন সময়ের ক্রুটি ধরা পড়লে প্রকৌশলীদের নির্দেশে ঝুঁকি এড়াতে ওই ভবনের পেছনের একটি নর্দমা কলেজ কর্তৃৃৃপক্ষ ইচ্ছা করেই বালু দিয়ে ভরাট করে দেয়। ওই নর্দমাটিই ছিল কলেজ মাঠ থেকে বৃষ্টির পানি নেমে যাওয়ার একমাত্র পথ। নর্দমাটি বন্ধ করে দেওয়ার পর থেকেই সামান্য বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা দেখা দেয়।  এদিকে কলেজের দক্ষিনে অবস্থিত একটি আবাসিক এলাকার বাসিন্দারা জানান, ভারি বৃষ্টি হলেও পানি কলেজের মাঠ উপছে বাসাবাড়িতে প্রবেশ করে।
কলেজের অধ্যক্ষ মো. রফিকুল ইসলাম খানের কাছে প্রভাষককে শোকজের কারণ জানতে চাইলে তিনি এ ব্যাপারে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।
ঈশ্বরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো. হাবিবুর রহমান বলেন, নতুন ড্রেন তৈরি করা নিয়ে কিছুটা জটিলতা থাকলেও আগামী জুলাইয়ে ড্রেন নির্মাণের দরপত্র আহ্বান করা হবে। তবে বিকল্প পথে আপাতত পানি সরানোর কাজ শুরু হয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:৩৬ অপরাহ্ণ | জুন ১১, ২০১৫