| দুপুর ১:৪৮ - শুক্রবার - ১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ২০শে মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

মধুপরের দো’খোলা কারিতাস ময়মনসিংহ অঞ্চল ও বনবিভাগের যৌথ সংলাপ

এএইচএম মোতালেবঃ ০৯ জুন ২০১৫, মঙ্গলবার,
কারিতাস ময়মনসিংহ আঞ্চলিক কার্যালয়ের উদ্যোগে বাংলাদেশের বনবিভাগ ও অধিদপ্তরের বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রমে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী আদিবাসীদের অংশগ্রহন বৃদ্ধির লক্ষ্যে আজ সকাল সাড়ে দশটায় মধুপরের দো’খোলা বনবিশ্রামাগারে সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়।
কারিতাস ময়মনসিংহ আঞ্চলিক কার্যালয়ের আঞ্চলিক পরিচালক অপূর্ব ম্রং এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী আদিবাসীদের অংশগ্রহন বৃদ্ধির লক্ষ্যে সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন টাঙ্গাইল বিভাগীয় বনকর্মকর্তা মাসুদ রানা , মধুপুর জাতীয় উদ্দ্যানের সহকারী বনসংরক্ষক মামুন আল মামুন, দো’খোলা ইউপি চেয়ারম্যান এয়াকুব আলী, প্রকল্প সমন্বয়কারী শশাংক রিসিল , প্রোগ্রাম অফিসার ওসমান গনি, ধিরেন্দ্র চন্দ্র, দিশারো দারু, অমূল্য চন্দ্র বর্মন, অলোকচন্দ্র বর্মন, অজয় সাংমা, মতিন্দ্র চন্দ্র বর্মন, কানন কুবি, সুলেখা ম্রং, উইলিয়াম রাংসা প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। দীর্ঘ সাড়ে তিনঘন্টা একটানা সংলাপে বনবিভাগের সাথে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাথে দীর্ঘদিনের পুঞ্জিবিত দুরুত্ব অনেক কমে এসেছে। বিভাগীয় বনকর্মকর্তা সমস্যবলী দ্রুত সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। বক্তারা বলেন সরকার কর্তৃক সামাজিক বনায়ন, উডলট বাগান, কৃষি বন সৃজনে গারো, কোচ, বর্মন অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে অংশগ্রহন করবেন বলেও প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। মধূপুরের সংরক্ষিত বনের ঐতিহ্য রক্ষার অঙ্গিকার করেন। বনবিভাগীয় কর্মকর্তাকে সামাজিক, উডলট, কৃষিবন সৃজনে সরকারের নীতিমালা অনুসরন করার দাবী জানান।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৩৭ অপরাহ্ণ | জুন ০৯, ২০১৫