| রাত ১:১৪ - বুধবার - ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

গফরগাঁওয়ে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ভাংচুর, লুটপাট, আহত-৮

গফরগাঁও প্রতিনিধিঃ  ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে জমি সংক্রান- বিরোধের জের ধরে গতকাল বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এ সময় হামকারীদের আঘাতে স্কুল ছাত্রীসহ ৮ জন আহত হয়। গুরুতর আহত ৩জনকে গফরগাঁও উপজেলা স্বাস’্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার চরআলগী ইউনিয়নের চরমছলন্দ কাচারীপাড়া গ্রামে।
জানা যায়, উপজেলার চরমছলন্দ কাচারী পাড়া গ্রামের মোতাহার হোসেন ও তার ভাইদের পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া ২৫ শতাংশ জমি নিয়ে প্রতিবেশি ইদ্রীস আলীর সাথে বিরোধ চলে আসছিল। বিরোধপূর্ন জমি নিয়ে ময়মনসিংহ আদালতে একটি মামলা বিচারাধীন রেেয়ছে। এ অবস’ায় গতকাল ইদ্রীস আলী প্রায় অর্ধশতাধিক লোক ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মোতাহার হোসেনের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে। পরে হামলাকারীরা আবারো মোতাহারের ভাই আলতাবের ফার্নিচার ও জমিস উদ্দিনের মিষ্টির দোকানেও ব্যাপক ভাংচুর চালিয়ে লুটপাট করে। এ সময় হামলাকারীদের আঘাতে সেলিনা বেগম (৪১), মজিদা (৩৮), জসিম উদ্দিন (৪৫), ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী জলি আক্তার, মোতাহার হোসেন (৪৮), সাইতুন নেছাসহ (৬২) অন-ত ৮ জন আহত হয়। গুরুতর আহত সেলিনা মজিদা ও জসিম উদ্দিনকে গফরগাঁও উপজেলা স্বাস’্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
মোতাহার হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ইদ্রীস আলী অসংখ্য বিএনপির লোক নিয়ে আমাদের বাড়িতে হামলা করে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে। তাছাড়াও আমার ভাইদের ফার্নিচার ও মিষ্টিও দোকানেও ভাংচুর চালায়।
গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ওবায়েদা খান বলেন, হামলা ভাংচুরের ঘটনায় মোতাহের হোসেন বাদি হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। তদন- সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস’া নেওয়া হবে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:৩৬ অপরাহ্ণ | জুন ০৮, ২০১৫