| সকাল ৬:২৮ - বৃহস্পতিবার - ৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৩ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

দ.কোরিয়ায় মার্স আতঙ্কে দুই হাজার স্কুল বন্ধ

অন লাইন ডেস্ক, ৮ জুন ২০১৫, সোমবার:

মিডল ইস্ট রেসপিরেটরি সিনড্রম (মার্স) ভাইরাস আতঙ্কে দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রায় দুই হাজার স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এরই মধ্যে এই সংক্রমণকে ‘মহামারী’ বলে সংজ্ঞায়িত করেছে।

সোমবার (০৮ জুন) পর্যন্ত দক্ষিণ কোরিয়ায় মার্স ভাইরাসের সংক্রমণে ছয়জনের মৃত্যুর হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া প্রায় ৮৭ জন মার্স সংক্রমিত রোগী সনাক্ত হয়েছে বলে দেশটির স্বাস্থ্য অধিদফতরের বরাত দিয়ে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

সংক্রমণের আশঙ্কায় সন্দেহজনক দুই হাজার তিনশ’ মানুষকে ‘সঙ্গরোধ’ (অন্যের সংস্পর্শ থেকে পৃথক করে রাখা) করে রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে। এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে অভিনব ব্যবস্থা নিতে চলেছে দক্ষিণ কোরিয়া। ‘সঙ্গরোধ’ করে রাখাদের ঘরে রাখতে তাদের সেলফোন ট্র্যাক করার পরিকল্পনা নিয়েছে সিউল প্রশাসন।

মার্স ভাইরাসের সংক্রমণে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ২০১২ সালের জুন মাসে সৌদি আরবে।

মার্স নামের এই আরএনএ ভাইরাসের সংক্রমণের প্রাথমিক উপসর্গ জ্বর আসা ও শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা হওয়া। উপসর্গ দেখে প্রথমে মনে হবে, সাধারণ ঠাণ্ডা-সর্দির কারণেই এমনটা হচ্ছে। কিন্তু দ্রুত চিকিৎসকের স্মরণাপন্ন না হলে পরবর্তীতে নিউমোনিয়া ও কিডনি বিকল হয়ে পড়ে রোগীর।

তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, এই ভাইরাসটি ততোটা সংক্রমণ ঘটায় না। এ পর্যন্ত সারা বিশ্বে এক হাজার দুইশ ৩৬ জন মার্স আক্রান্ত হয়েছে, যাদের মধ্যে চারশ ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব অনুযায়ী, মার্স ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর মৃত্যুর শঙ্কা আগের চেয়ে ৩৮ ভাগ বেড়ে গেছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:০০ অপরাহ্ণ | জুন ০৮, ২০১৫