| সন্ধ্যা ৬:২৯ - শনিবার - ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৮ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

৪ হাজার ৬শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে ভারতের দুই কোম্পানির সঙ্গে এমওইউ স্বাক্ষর

 অনলাইন ডেস্ক, ৬ জুন ২০১৫, শনিবার,
 সরকার দেশে ক্রমবর্ধমান বিদ্যুৎ চাহিদা মেটাতে এবং জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ৪ হাজার ৬শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য ভারতের দুটি কোম্পানির সঙ্গে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর করেছে।

বাংলাদেশে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি) এবং ভারতের রিলায়েন্স পাওয়ার লিমিটেড ও আদানি পাওয়ার লিমিটেডের মধ্যে এই এমওইউ স্বাক্ষর হয়। চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশের কোন সুবিধাজনক স্থানে ৪ হাজার ৬শ’ মেগাওযাট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করা হবে।
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এমওইউ স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রত্যক্ষ করেন। অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান এম তাজুল ইসলাম জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিব এম আবু বক্কর সিদ্দিক এবং বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মনোয়ার ইসলামও উপস্থিত ছিলেন।
এমওইউ অনুযায়ী ভারতের রিলায়েন্স গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান রিলায়েন্স পাওয়ার লিমিটেড বাংলাদেশের সুবিধাজনক কোন স্থানে গ্যাস চালিত ৩ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম একটি পাওয়ার প্লান্ট স্থাপন করবে। অপর দিকে আদানি গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান আদানি পাওয়ার প্লান্ট বাংলাদেশের মহেশখালী অথবা অন্য কোন সুবিধাজনক স্থানে ১ হাজার ৬শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম একটি গ্যাসভিত্তিক পাওয়ার প্লান্ট স্থাপন করবে।
বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী অনুষ্ঠানে বলেন, সরকার ভিশন-২০২১ অনুযায়ী ২০২১ সালের মধ্যে সমগ্র দেশ বিদ্যুতের আওতায় নিয়ে আসার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।
বাংলাদেশ জ্বালানি নির্ভর একটি দেশ। ভিশন-২০২১ বাস্তবায়নে আমাদের আরো অনেক জ্বালানি ও বিদ্যুৎ প্রয়োজন। তিনি বলেন, সরকার বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রাথমিক জ্বালানি উৎস বহুমুখীকরণে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কৌশলগত লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। সরকার প্রতিবেশী ও বন্ধুপ্রতিম দেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয়, ত্রিপক্ষীয় ও আঞ্চলিক সহযোগিতার মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদনের উদ্যোগ নিয়েছে।
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে সরকার ৭০ ভাগ লোককে বিদ্যুতের আওতায় নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে।
বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (বিপিডিবি) সচিব এম জহিরুল হক, রিলায়েন্স পাওয়ার লিমিটেডের সমির কুমার গুপ্ত এবং আদানি পাওয়ার লিমিটেডের ভীট এস জাইন তাদের নিজ নিজ কোম্পানির পক্ষে এমওইউ’তে স্বাক্ষর করেন।
বিপিডিবি’র সচিব এম জহিরুল হক, ইসোলাক্স ইঞ্জিনিয়ারের জেনারেল ম্যানেজার জোসে লুইফ ডাগো ইলোরা এবং স্যামসং সি এন্ড টি কর্পোরেশনের জেনারেল ম্যানেজার সুংকি না স্ব স্ব পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।৫ (বাসস)

সর্বশেষ আপডেটঃ ৬:২৫ অপরাহ্ণ | জুন ০৬, ২০১৫