| দুপুর ২:৪৫ - সোমবার - ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১১ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

মুক্তাগাছায় এক হিন্দু পরিবারকে উচ্ছেদের পায়তারা বাড়িঘরে হামলা, আগুন

মুক্তাগাছা(ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ০১ জুন, সোমবার,
ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা পৌর শহরের পয়ারকান্দি এলাকায় এক হিন্দু পরিবারকে উচ্ছেদের পায়তারায় বাড়ি-ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর শেষে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এসময় আগুনে একটি ঘর পুড়ে গেছে। থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।
বাদীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে সোমবার সরিজমিনে গিয়ে জানাযায়, শহরের পয়ারকান্দি এলাকার মৃত দিগেন্দ্র চন্দ্র পালের পুত্র জিতেন্দ্র চন্দ্র পাল টগুর সাথে একই এলাকার বিএনপি নেতা গাড়ি পোড়ানো মামলায় আত্মগোপনে থাকা তরিকুল ইসলাম রতনের পিতা আঃ জলিল খানের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিবাদ চলে আসছে। সমপ্রতি আব্দুল জলিলের পুত্র রানা(২৭) এর নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ গ্রুপ জোরপূর্বক জিতেন্দ্র পাল টগুর জমির পাকা ধান কেটে নিয়ে যায়। এনিয়ে টগু বাদী হয়ে মুক্তাগাছা থানায় মামলা দায়ের করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গত শুক্রবার রানার নেতৃত্বে ১৫/২০জনের একটি গ্রুপ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে টগুর বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় তারা বাড়িঘরে ভাঙ্‌চুর শেষে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে একটি টিনের ঘর পুড়ে যায়। এসময় রানার নেতৃত্বে অস্ত্রধারীরা টগুর পরিবারকে দেশ ছাড়া করার হুমকি দেয় বলে টগু ও তার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়। টগু জানান সে এবং তার ভাই ছোট থাকতেই তাদের বাবা মারা যায়। তখন আঃ জালিল খান জোরপূর্বক তাদের ১একর ২৩ শতক দখল করে নেয়। এনিয়ে আদালতে মামলা করলে আদালত টগুর পক্ষে রায় দেয়। পরে তারা সে জমি আবাদ করলে জলিলের লোকজন জোর করে ধান কেটে নিয়ে যায়। এরপর থেকেই তাদেরকে এলাকা থেকে উচ্ছেদ করার হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে সে জানায়। মুক্তাগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামাল হোসেন বলেন ঘটনার তদনত্মপূর্বক আইনানুগ ব্যবস’া গ্রহণ করা হবে

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৩৪ অপরাহ্ণ | জুন ০১, ২০১৫