| রাত ১২:৩০ - সোমবার - ২৮শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ৩রা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

১২ শতাধিক শিক্ষকের ভাতা ৪০ টাকা করে কম দেয়ার অভিযোগ

 

আজহারুল হক, গফরগাঁও,১ জুন ২০১৫, সোমবার:
ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে একদিন ব্যাপী প্রাথমিক শিক্ষকদের সাব ক্লাষ্টার ট্রেনিংয়ের জন্য প্রতিটি শিক্ষকের বরাদ্ধকৃত টাকা থেকে ৩০ থেকে ৪০ টাকা করে কম দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।
শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, গফরগাঁও উপজেলায় কর্মরত ১২ শতাধিক প্রাথমিক শিক্ষকের জন্য আয়োজিত সাব ক্লাষ্টার ইসিএল (শিখবে প্রতিটি শিশু) ট্রেনিংয়ের জন্য প্রতিটি শিক্ষকের ১৪০ টাকা করে প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ভাতা বরাদ্ধ দেওয়া হয়। কিন’ বিভিন্ন ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তারা (এটিও) শিক্ষদের ভাতা ২৪০ স্থলে ১৯০ থেকে ২১০ টাকা করে দিচ্ছেন। বাকি ৩০ থেকে ৫০ টাকা ওই সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তারা আত্মসাৎ করছেন বলে অসংখ্য শিক্ষক অভিযোগ করেছেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষক অভিযোগ করে বলেন, আমাদের কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে কোন টাকার অংক না বসিয়ে ২৪০টাকার স্থলে ২০০টাকা করে ভাতা দিচ্ছেন এটিওরা।
রসুলপুর ইউনিয়নের একাধি শিক্ষক অভিযোগ করে বলেন, সাব ক্লাষ্টার ট্রেনিংয়ের টাকা ট্রেনিং শেষ হওয়ার সাথে সাথে এটিওদের হাতে বিতরণ করার কথা থাকলেও এমনটি না করে কয়েকদিন পর কয়েকজন শিক্ষকের মাধ্যমে ২৪০টাকা ভাতার স’লে ১৯০টাকা করে আমাদেরকে দেওয়া হয়েছে।
শিক্ষকদের এমন অভিযোগে উপজেলার গফরগাঁও, রাওনা, বারবাড়িয়া, পাঁচবাগ ইউনিয়নের শিক্ষকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ওইসব ইউনিয়নে বিভিন্ন বিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষকরাও ২৪০টাকার স’লে ২০০ টাকা করে ভাতা পেয়েছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে মিটিং করে সংশ্লিষ্ট সকল সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে সকল শিক্ষকের প্রাপ্য অনুযায়ী ভাতা প্রদান করতে বলা হয়েছে। তাতে কোন অনিয়ম হয়ে থাকলে সাব ক্লাষ্টারের দায়িত্বে থাকা সকল কর্মকর্তাকে জবাবদিহি করতে হবে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৬:১৪ অপরাহ্ণ | জুন ০১, ২০১৫