| দুপুর ২:২৩ - শনিবার - ১৩ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ - ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ - ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, শিক্ষক কারাগারে

অনলাইন ডেস্ক,২৭ মে ২০১৫, বুধবার:

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে (৯) পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগে গ্রেপ্তার মাদরাসা শিক্ষক জয়নাল আবেদীনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বুধবার দুপুরে কিশোরগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এস.এম রাজিবুল হাসান অভিযুক্ত মাদরাসা শিক্ষকের জামিন আবেদন না-মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এর আগে বিচারক রাজিবুল হাসান তার ব্যাক্তিগত কক্ষে ধষর্ণের শিকার স্কুলছাত্রীর জবানবন্দি গ্রহণ করেন। এছাড়া মঙ্গলবার রাতে কিশোরগঞ্জ জেলা হাসপাতালে তিন সদস্যের একটি চিকিৎসক দল স্কুল ছাত্রীর শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন করেন বলে জানিয়েছেন জেলার সিভিল সার্জন ডা. মোখলেছুর রহমান। অভিযুক্ত জয়নাল আবেদীন উপজেলার উত্তর মুমুরদিয়া গ্রামের মৃত ইউনুস আলীর ছেলে এবং স্থানীয় নূরানী মাদরাসার শিক্ষক ও মুমুরদিয়া বাজার জামে মসজিদের ইমাম।

গত সোমবার (২৫শে মে) সকালে কটিয়াদী উপজেলার মুমুরদিয়া ইউনিয়নের উত্তর মুমুরদিয়া গ্রামে স্থানীয় নুরানী মাদরাসায় আরবি শিখতে গিয়ে জয়নাল আবেদীনের হাতে ধর্ষণের শিকার হয় ওই ছাত্রী। ঘটনাটি জানতে পেরে স্থানীয় জনতা ওই শিক্ষককে তার বাড়ি থেকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে বেঁধে রাখে। পরে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।
পাশবিক নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রী গুরুতর আহত অবস্থায় বর্তমানে কিশোরগঞ্জ জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। সে মুমুরদিয়ার একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী। এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে জয়নাল জয়নাল আবেদীনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে ২৫শে মে রাতে কটিয়াদী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা(নং ৩৪) দায়ের করেছেন।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৩০ অপরাহ্ণ | মে ২৭, ২০১৫