| দুপুর ১২:৫৫ - বৃহস্পতিবার - ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১৪ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

সবচেয়ে দামি লড়াইয়ের হিসাবি সমাপ্তি

অনলাইন ডেস্ক | ৪ মে ২০১৫, সোমবার:

ইতিহাসের সবচেয়ে দামি বক্সিং লড়াইটি ঘিরে টানা খবর হচ্ছিল গত ছয় মাস। ৩০০ মিলিয়ন ডলারের এ লড়াই পাচ্ছিল ‘ফাইট অব দ্য সেঞ্চুরি’ খেতাব। তবে বক্সিং রিং-এ যোদ্ধাদের সতর্ক ও হিসাবী এক লড়াই দেখতে পেলেন ক্রীড়াপ্রেমীরা। আর লড়াই শেষে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন বক্সার মেওয়েদারকে নিয়ে উঠলো ঠাট্টা-মশকরার রোল। গতকাল লাস ভেগাসে ওয়াল্টারওয়েট বক্সিং লড়াইয়ে ফিলিপাইনের ম্যানি প্যাকিয়াওকে পয়েন্টের ব্যবধানে হারিয়ে শিরোপার গৌরব পেলেন মার্কিন তারকা ফ্লয়েড মেওয়েদার। সঙ্গে তার ক্যারিয়ার রেকর্ডটাও রইলো দাগমুক্ত। ক্যারিয়ারে ৪৮ লড়াইয়ে শতভাগ জয়ের রেকর্ড মেওয়েদারের। রোববার লাস ভেগাসে এ লড়াইয়ে উভয় মুষ্টিযোদ্ধাকে রিং-এ দেখা গেছে অতি সতর্ক। এতে উভয় বক্সার লড়াইয়ে আক্রমণ হানছিলেন কমই। এতে নিজের শক্তিশালী জ্যাব নিয়ে লড়াইয়ে এগিয়ে যান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন বক্সার মেওয়েদার। লড়াই শেষে তিন বিচারকের পয়েন্ট ছিল মেওয়েদারের পক্ষে ১১৬-১১২, ১১৬-১১২ ও ১১৮-১১০। লড়াই শেষে ১৮০ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার জিতে নেয়া মার্কিন তারকা মেওয়েদার বলেন, আমি একজন হিসাবী যোদ্ধা। প্রতিপক্ষ কঠিন ছিল। আমার বাবা আমার কাছে আলাদা কিছু চাইছিলেন। কিন্তু প্যাকিয়াওয়ের বিপক্ষে লড়াইটা আসলেই কঠিন। লড়াইয়ে এক সময় আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে দেখা যায় ম্যানি প্যাকিয়াওকে। লড়াই শেষে প্যাকিয়াওয়ের কথায়ও আক্রমণ। ফিলিপিনো এ বক্সার বলেন, আমি মনে করেছিলাম আমিই জিতেছি। সে (মেওয়েদার) তো কিছুই করলো না। বরং আমি তাকে এক সময় মুহুর্মুহু ঘুষিতে কাবু করেছিলাম। গতকাল লড়াইয়ে বিশ্বসেরা বক্সার ফ্লয়েড মেওয়েদারের রক্ষণাত্মক ঢং দেখে এ মার্কিন মুষ্টিযোদ্ধাকে তুলনা করা হচ্ছে ফুটবল কোচ হোসে মরিনহোর সঙ্গে। অপর টুইটার বার্তায় বলা হয় মেওয়েদার বক্সিং রিংয়ে পাকিয়াওয়ের সঙ্গে লড়াই করতে গিয়েছিলেন নাকি কোলাকুলি করতে?

সর্বশেষ আপডেটঃ ৪:৩৫ অপরাহ্ণ | মে ০৪, ২০১৫